< লোকসভা ভোটের আগে আবারো কাট মানির অভিযোগ প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে

লোকসভা ভোটের আগে আবারো কাট মানির অভিযোগ প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে

লোকসভা ভোটের আগে আবারো কাট মানির অভিযোগ প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে Former Panchayat Pradhan's husband accused of "cut money" again before Lok Sabha polls

প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে লোকসভা ভোটের আগে আবারো কাট মানির অভিযোগ

 

দেবাশিস পাল,মালদা:-  সুপারভাইজারের পর এবার গ্রামের প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী। একশো দিনের কাজের শ্রমিকদের একাউন্টে টাকা ঢুকতে উপভোক্তাদের কাছ থেকে টাকা চাওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল পরিচালিত গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে। সমগ্র ঘটনা নিয়ে ব্লক ও জেলা প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেন গ্রামবাসী। মালদহের চাচল ১ নং ব্লকের অলিহন্ডা গ্রাম পঞ্চায়েতের কনুয়া এলাকার ঘটনা ।

উল্লেখ্য , ১০০ দিনের কাজ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগেই টাকা বন্ধ রেখেছে কেন্দ্র সরকার। বারবার বঞ্চনার অভিযোগ তুললেও হিসাব দেয়নি রাজ্য। ভোটের প্রাক্কালে সেই বকেয়া টাকার ৫০ শতাংশ রাজ্য সরকার মেটাচ্ছে। যার মধ্যেও এবার দুর্নীতির ছায়া। চাঁচল নং ব্লকের মকদম পুরে সুপারভাইজারের পর এবার অলিহণ্ডা গ্রাম পঞ্চায়েতের কনুয়া এলাকার তৃণমূলের প্রাক্তন প্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে উপভোক্তাদের কাছ থেকে কাঠমানি চাওয়ার অভিযোগ। টাকা না দেওয়ায় উপভোক্তাকে বাড়ি চড়ে হুমকি, শ্মশানি এবং মারধরের অভিযোগ। জানা গিয়েছে, অভিযোগকারী উপভোক্তার নাম খতেজা বেওয়া, হানিফ আলী সহ বেশ কয়েকজন উপভোক্তার কাছ থেকে একশ দিনের সম্পূর্ণ টাকা দাবি করছে অলি হন্ডা গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের প্রাক্তন প্রধানের স্বামী আনসার আলী। কাটমানি না দেওয়ায় উপভোক্তাদেরকে হুমকি এবং মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। সমগ্র ঘটনা নিয়ে ব্লক প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছেন উপভোক্তারা। তৃণমুলের প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী আনসার আলীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

যদি এই বিষয়ে পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী অভিযুক্ত আনসার আলীকে এ বিষয়ে ধরা হলে তিনি প্রতিক্রিয়া দেন নি। লোকসভা ভোটের আগে আবারো কাট মানির অভিযোগ সামনে আসতেই শাসকদলকে তীব্র ভাষায় তুলোধোনা করেছে বিজেপি। যদিও পঞ্চায়েত প্রধানের গুণকীর্তি স্বীকার করে নিয়েছেন চাঁচল ১ নং ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *