< প্রতিশ্রুতি পূরণ অভিষেকের, ঢালাই রাস্তা পেল মারিশদা

প্রতিশ্রুতি পূরণ অভিষেকের, ঢালাই রাস্তা পেল মারিশদা

কথা দিলে তিনি কথা রাখেন। এটা আরও একবার প্রমাণ করলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সাক্ষী পূর্ব মেদিনীপুরের মারিশদার ডিহিমাল গ্রাম। সভা করে ফেরার পথে তাঁর গাড়ি দাঁড় করিয়ে স্থানীয় মহিলারা জানান রাস্তার সমস্যার কথা। প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন অভিষেক। এক বছর পেরোতেই প্রায় ১ কিলোমিটার ঢালাই রাস্তা পেল মারিশদা।

২০২২-র ৩ ডিসেম্বর কাঁথিতে সভা করে ফেরার পথে মারিশদার ডিহিমাল গ্রামের মহিলারা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়ি দাঁড় করান। অভিযোগ, এই গ্রামে প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা অত্যন্ত খারাপ। মহিলাদের সঙ্গে নিয়েই এলাকা পরিদর্শন করে অভিষেক কথা দেন, রাস্তা হবে। সপ্তাহ খানেকের মধ্যেই রাজ্যের ইঞ্জিনিয়াররা এলাকাটি পরিদর্শন করেন। ২০২৩-এর অক্টোবর এই রাস্তার কাজ শুরু হয়। অভিষেকের প্রতিশ্রুতি মতো এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে জেলা পরিষদের সহযোগিতায় রাস্তা তৈরি হয়। এবছর ২০ জানুয়ারি কাজ শেষ হয়। রবিবার তা উদ্বোধন হল।
পঞ্চায়েত নির্বাচনের আদর্শ আচরণ বিধি এবং বর্ষাকালে কাজ করার অসুবিধার জন্য রাস্তা তৈরিতে কিছুটা দেরি হয়। তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, এই দেরিকে রাজনৈতিকভাবে অপব্যবহার করেছে বিজেপি। রাস্তা তৈরির পর এলাকাবাসী বিজেপির মিথ্যাচার বুঝতে পারছেন।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি উত্তম বারিক, কাঁথি ৩ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বিকাশ বেজ, এলাকার প্রাক্তন জেলা পরিষদ সদস্য নন্দদুলাল মাইতি স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রতিনিধিদের নিয়ে রাস্তা উদ্বোধনে গেলে গ্রামবাসীদের উচ্ছ্বাস ও আনন্দ ছিল চোখে পড়ার মতো। বারবার জয়ধ্বনি ওঠে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে।
উত্তম বারিক বলেন, বিজেপি ও মিথ্যাচার মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। কিন্তু মিথ্যা দিয়ে কখনও সত্যকে ঢেকে রাখা যায় না। আজ এলাকাবাসীরা সত্যি বাস্তবটা বুঝতে পারলেন, অনুভব করলেন। তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিশ্রুতি শেষ পর্যন্ত বাস্তবায়িত হওয়ায় কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বাসিন্দারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *