< বঞ্চনার প্রতিবাদে আজ থেকে চা-বলয়ে আন্দোলন

বঞ্চনার প্রতিবাদে আজ থেকে চা-বলয়ে আন্দোলন

পরিকল্পিত ভাবে চা-শ্রমিকদের বঞ্চিত করছে কেন্দ্র। পিএফ নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের গড়িমসি। ১০০০ কোটি টাকা ঘোষণা করে না দেওয়া। চা-বাগান অধিগ্রহণ করার নামে মোদি সরকারের মিথ্যা প্রতিশ্রুতি। এসবেরই জবাব চেয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেখানো পথে ফের আজ, সোমবার থেকে আন্দোলনে নামছে আইএনটিটিইউসি অনুমোদিত তৃণমূল চা-বাগান শ্রমিক ইউনিয়ন। চলবে ১ মার্চ পর্যন্ত।

এ-বিষয়ে জানাতে রবিবার শিলিগুড়িতে স্টেট গেস্ট হাউসে সাংবাদিক বৈঠক করেন আইএনটিটিইউসির রাজ্য সভাপতি ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, এই আন্দোলনে যোগ দেবেন চা-বলয়ের প্রতিটি শ্রমিক। একাধারে কেন্দ্রের বঞ্চনা আর অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়ন প্রকল্পগুলি তুলে ধরা হবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চা-শ্রমিকদের চা-সুন্দরী, জমির পাট্টা দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, চা-বলয়ে ক্রেশ হাউসের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৯৬টি। এছাড়াও শ্রমিকদের উন্নত স্বাস্থ্য পরিষেবা দিতে শুধু চা-বলয়ে ৫২টি হেলথ সেন্টার হয়েছে। এসবেরই খতিয়ান তুলে ধরা হবে। কোন পথ ধরে শুরু হবে একতা যাত্রা? এই প্রসঙ্গে আইএনটিটিইউসির রাজ্য সভাপতি ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, আজ ১৯ তারিখ আলিপুরদুয়ার জেলার কুমারগ্রাম ব্লকের সংকোশ চা-বাগান থেকে শুরু হবে এই আন্দালন। এর মধ্যে ১৯, ২০, ২১, ২২, ২৩,২৪ ফেব্রুয়ারি এই ছয়দিন পদযাত্রা থাকবে আলিপুরদুয়ারে। সারাদিন ধরে চলবে পদযাত্রা। প্রত্যেক বাগান থেকে পদযাত্রীরা মিলিত হবেন একটি নির্দিষ্ট জায়গায়। প্রতিদিন পদযাত্রার পর বিকেলে হবে সমাবেশ।

২৫, ২৬, ২৭, ২৮, ২৯ ফেব্রুয়ারি পদযাত্রা জলপাইগুড়িতে। ২৯ তারিখ এই পদযাত্রা শেষ হবে এলেনবাড়িতে। ১ মার্চ সমাবেশ হবে বানারহাটে। রবিবার বৈঠকে ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপস্থিত ছিলেন, গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা, নির্জল দে প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *