< ED : আপের আবেদনে ইডি-র রিপোর্ট তলব

ED : আপের আবেদনে ইডি-র রিপোর্ট তলব

ইডির গ্রেফতারির বিরোধিতা করে সু্প্রিম কোর্টের দ্বারস্থ দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। সুপ্রিম কোর্ট সোমবার এই আবেদনের ভিত্তিতে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটকে নোটিশ জারি করেছে। ২৯ এপ্রিল থেকে যে সপ্তাহ শুরু হবে সেই সপ্তাহে এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে। তার আগে ইডি-কে রিপোর্ট পেশ ও যাবতীয় সংশোধনী সেরে ফেলার নির্দেশ দেন বিচারপতি সঞ্জীব খান্না ও বিচারপতি দীপঙ্কর দত্তর ডিভিশন বেঞ্চ। সোমবার সুপ্রিম কোর্টে কেজরিওয়ালের পক্ষের আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি তুলে ধরেন সিবিআই ও ইডি-র এফআইআর, ইসিআইআর ও আটটি চার্জশিটে কেজরির নাম নেই। এছাড়াও ২০২২ সালের সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই মামলায় ১৬ জনের বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। তার মধ্যে একটি বয়ানে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর নাম থাকার ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এটা সম্পূর্ণভাবে নির্বাচনী আচরণ বিধি জারি অবস্থায় কেজরিকে প্রচার না করতে দেওয়ার উদ্দেশ্যে বলে, দাবি করেন আইনজীবী সাংভি। আপের আইনজীবীর সওয়ালের ভিত্তিতে আদালতের আদেশে বলা হয়,”নোটিশ জারি করা হলো। আগামী ২৪ এপ্রিলের মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে হবে। নোটিশ উত্তরদাতাদের দ্বারা গৃহীত হয়েছে। নোটিশের জবাব সম্পর্কে আবেদনকারীর কোনো বক্তব্য থাকলে ২৭ এপ্রিল বা তার আগে পুনরায় পিটিশন দাখিল করতে হবে।” সিনিয়র অ্যাডভোকেট অভিষেক মনু সিংভি, কেজরিওয়ালের পক্ষে উপস্থিত হয়ে আরও আগে একটি তারিখ চেয়েছিলেন কিন্তু আদালত মামলাটি ২৯ এপ্রিল পরবর্তী শুনানির জন্য নথিভুক্ত করেছেন।

ইডির গ্রেফতারির বিরোধিতা করে সু্প্রিম কোর্টের দ্বারস্থ দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। সুপ্রিম কোর্ট সোমবার এই আবেদনের ভিত্তিতে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটকে ( ED ) নোটিশ জারি করেছে। ২৯ এপ্রিল থেকে যে সপ্তাহ শুরু হবে সেই সপ্তাহে এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে। তার আগে ইডি-কে রিপোর্ট পেশ ও যাবতীয় সংশোধনী সেরে ফেলার নির্দেশ দেন বিচারপতি সঞ্জীব খান্না ও বিচারপতি দীপঙ্কর দত্তর ডিভিশন বেঞ্চ।

সোমবার সুপ্রিম কোর্টে কেজরিওয়ালের পক্ষের আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি তুলে ধরেন সিবিআই ও ইডি-র এফআইআর, ইসিআইআর ও আটটি চার্জশিটে কেজরির নাম নেই। এছাড়াও ২০২২ সালের সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই মামলায় ১৬ জনের বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। তার মধ্যে একটি বয়ানে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর নাম থাকার ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এটা সম্পূর্ণভাবে নির্বাচনী আচরণ বিধি জারি অবস্থায় কেজরিকে প্রচার না করতে দেওয়ার উদ্দেশ্যে বলে, দাবি করেন আইনজীবী সাংভি।

আপের আইনজীবীর সওয়ালের ভিত্তিতে আদালতের আদেশে বলা হয়,”নোটিশ জারি করা হলো। আগামী  ২৪ এপ্রিলের মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে হবে। নোটিশ উত্তরদাতাদের দ্বারা গৃহীত হয়েছে। নোটিশের জবাব সম্পর্কে আবেদনকারীর কোনো বক্তব্য থাকলে ২৭ এপ্রিল বা তার আগে পুনরায় পিটিশন দাখিল করতে হবে।” সিনিয়র অ্যাডভোকেট অভিষেক মনু সিংভি, কেজরিওয়ালের পক্ষে উপস্থিত হয়ে আরও আগে একটি তারিখ চেয়েছিলেন কিন্তু আদালত মামলাটি ২৯ এপ্রিল পরবর্তী শুনানির জন্য নথিভুক্ত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *